Home / Islam / তারাবীহ এর নামাজের রাকা’আত সংখ্যা
তারাবীহ এর নামাজের রাকাআ'ত সংখ্যা
তারাবীহ এর নামাজের রাকাআ'ত সংখ্যা

তারাবীহ এর নামাজের রাকা’আত সংখ্যা

তারাবীহ-এর নামাজের রাকা’আত সংখ্যা

রমজান মাস আসলেই একটি মহল তারাবীহ এর নামাজের রাকা’আত সংখ্যা নিয়ে বাক-বিতন্ডা শুরু করে দেয়। এক গ্রুপ অন্য গ্রুপের প্রতি বিদা’তি, ফাসিক, মূর্খ ইত্যাদি অশালীন ভাষা প্রয়োগ করে থাকেন। একটি শ্রেণি এ নিয়ে রীতিমতো হৈচৈ ফেলে দিয়ে বুঝে না বূঝে অযথাই ফিতনা সৃষ্টি করে ফেলেন।

এ বিষয়ে নীচের বিষয়গুলো বিবেচনায় রাখা যেতে পারে।

তারাবীহ এর নামাজের রাকা’আত সংখ্যা কুরআন বা হাদিসে এমন করে সুনির্দিষ্ট করা হয়নি যে কিছুতেই এর কম-বেশি করা যাবে না।
রমজান বা রমজানের বাইরে কিয়ামুল লাইল হিসেবে মহানবী (সা.) বিতর সহ ১১ রাকা’আত বা ১৩ রাকা’আতের বেশি সালাত পড়তেন না বলে সহীহ হাদিসে উল্লেখ রয়েছে (বুখারী, মুসলিম, কিতাবুস সাওম)। সুতরাং যারা ৮ বা ১০ রাকা’আত তারাবীহ আদায় করছেন, তারা রাসূল (সা.) এর আমলকেই অনুসরণ করছেন আলহামদুলিল্লাহ।

হযরত ওমর (রা.) তাঁর শাসনামলে মসজিদে জামায়াতের সাথে ২০ রাকা’আত তারাবীহ আদায়ের ব্যবস্থা করেছিলেন বলে বিভিন্ন সুত্রে প্রমাণিত। সমসাময়িক সাহাবীগণ এ সিদ্ধান্ত সমর্থন করেছেন। সুতরাং যারা ২০ রাকা’আত তারাবীহ আদায় করছেন, তারা হযরত ওমরের নেতৃত্বাধীন সাহাবীদের একটি সর্বসম্মত আমলের অনুসরণ করছেন আলহামদুলিল্লাহ।
এছাড়াও সালফে সালেহীনদের অনেকেই কিছু দলীলের ভিত্তিতেই ৩৬ বা ৪০ রাকা’আত তারাবীহ আদায় করেছেন।

◇ সুতরাং মুসল্লীর শারীরিক সামর্থ্য ও অন্যান্য দিক বিবেচনায় ৮, ১০, ২০, ৩৬ অথবা ৪০ রাকা’আতের যে কোনোটিই অনুসরণ করতে আপত্তির কিছু নেই তবে তারাবীহর নামাজ ধীরস্থির ভাবে আদায় করা প্রয়োজন। আর রাকা’আতে মতপার্থক্যের কারণে এ নিয়ে ফিতনা সৃষ্টি করা, বিদ্বেষ তৈরি করা, অশালীন কথাবার্তা বলা বা মূসলিম উম্মাহর ঐক্যের জন্য ক্ষতিকর কিছু করা কিছুতেই ঠিক হবে না। মনে রাখতে হবে তারাবীহ এর নামাজের রাকা’আতের সংখ্যা নিয়ে হুলুস্থুল করার চেয়ে মুসলিম ভ্রাতৃত্ব, সৌহার্দ ও ঐক্য বজায় রাখার গুরুত্ব অনেক বেশি।

লেখকঃ এস এম সানাউল্লাহ

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *